Mentors

Christophe Knoch
Curator | Cultural Manager | Founder, Mica Moca

After studying law, Christophe Knoch worked for different institutions in the fields of opera and theatre. He worked for theatre director and performance artist Christoph Schlingensief as his assistant up until his death in August 2010 when he was entrusted with running operations, notable for the construction of the Opera Village in Burkina Faso. In Spring 2011 Christophe Knoch started the Mica Moca project in Berlin, which evolved to make a strong transdisciplinary impact on the Berlin venue scene. 

He currently drives the public discussion on how to repurpose public spaces in Berlin. In his last project he combined his commitment to  artistic and urban development in suggesting the creation of a forest in Berlin’s closed airport Tempelhof.

His experience in developing spaces for the arts stems from Mica Moca but also from many other initiatives such as Toplocentrala in Sofia (Bulgaria), Karl Marx Strasse 145 (Berlin) and the ongoing public discussion about the transformation of Berlin Alte Münze Old Mint. Much more than just technical questions it is the aspect of public discourse and participation that makes such spaces landmarks in a city and builders of urbanity.

ক্রিসটফ নক 
কিউরেটর | কালচারাল ম্যানেজার  | প্রতিষ্ঠাতা মিকা মোকা 

ক্রিসটফ নক  আইন পড়ার পর, একাধিক প্রতিষ্ঠানের হয়ে অপেরা ও থিয়েটারে কাজ করেছেন। ২০১০ সালের আগষ্ট মাসে নাট্যপরিচালক ও পারফরমেন্স শিল্পী ক্রিস্তফ স্ক্লিনজেনশ্যিফের মৃত্যুর আগে অবধি তাঁর সহকারী হিসেবে কাজ করেছেন। সেখানে তিনি নানান কাজের সাথে যুক্ত ছিলেন, বুর্কিনা ফাসো-তে অপেরা ভিলেজ তৈরি করা তাদের মধ্যে অন্যতম। ২০১১-র বর্ষায় নক বার্লিনে 'মিকা মোকা' প্রজেক্ট শুরু করেন। বার্লিন ভেন্যু সিনে এটা একটা গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্বিষয়ক অবদান রেখেছে। 

বর্তমানে তিনি নানা গণআলোচনা নির্দেশিত করেন, যেখানে বার্লিনের পাবলিক স্পেসের পুনর্ব্যবহারের প্রসঙ্গ আলোচিত হয়। শেষ প্রজেক্টে তিনি শৈল্পিক দায়িত্ব ও নগরোন্নয়নের মেলবন্ধন করেছেন। জানিয়েছেন কিভাবে বার্লিনের বদ্ধ বিমানবন্দর টেম্পলহফকে অরণ্যের রূপ দেওয়া যায়। 

শিল্পের পরিসর নির্মাণের জন্য তাঁর অভিজ্ঞতা শুধু 'মিকা মোকা'তেই থেমে নেই। একাধিক কাজ, যেমন টোপলোসেন্ট্রালা(বুলগেরিয়া), কার্ল মার্ক্স স্ট্র্যাসে ১৪৫(বার্লিন) ছাড়াও বার্লিনের অল্টে ম্যুঞ্জ ওল্ড মিন্টের পুনর্রূপায়ণের ক্ষেত্রে তিনি চলমান গণবিতর্কে অংশ নিয়েছেন। শুধু টেকনিক্যাল প্রশ্নের আলোচনায় থেমে থাকা নয়, এটি সুনিশ্চিত করে জনগণের ভাবনাচিন্তা ও অংশগ্রহণ। আর সেটাই তো এহেন পরিসরকে শহরের আর তার নির্মাতাদের কাছে ল্যান্ডমার্ক হিসেবে প্রতিষ্ঠা দেয়। 

https://www.micamoca.com/

Iftekhar Ahsan 
Entrepreneur | Founder Calcutta Walks 

Born and brought up in Calcutta and a graduate from St. Xavier’s College, Iftekar Ahsan’s love for the city coupled with his intuition for business gave rise to Calcutta Walks, a unique idea of walking tours through the city’s heritage spots and cultural centres. Iftekhar and his team prefer to call themselves ‘explorers’ who not only find joy in exploring Calcutta, but also attempt to encourage the people around the world to do the same. 

Iftekhar also collaborated with railways junkie and cartographer Samit Roychoudhuri on a project none had taken up in living memory: a Calcutta Tourist Map, which reveals the old city like never before. His other big project includes the Calcutta Bungalow- a 100 year old refurbished building situated in the North Kolkata neighbourhood, this heritage bed and breakfast is the brainchild of Iftekhar, a pioneer in sustainable tourism.

http://calcuttawalks.com/ 
https://calcuttabungalow.com/ 

 

ইফতেকার আহসান
উদ্যোক্তা | প্রতিষ্ঠাতা ক্যালকাটা ফটো ওয়াকস 

ইফতেকার আহসানের জন্ম ও বেড়ে ওঠা কলকাতায়, সেখানেই সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজে তাঁর স্নাতকস্তরের শিক্ষালাভ। শহরের প্রতি অফুরান ভালোবাসা আর ব্যবসায়িক দক্ষতা থেকে তিনি গড়ে তুলেছেন 'ক্যালকাটা ওয়াকস'। কলকাতার ঐতিহ্যবাহী স্থান ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্রগুলি হেঁটে দেখার এই উদ্যোগটি এককথায় অসাধারণ। ইফতেকার ও তাঁর দল নিজেদের 'অভিযাত্রী' বলতেই পছন্দ করেন। কলকাতাকে ঘুরে দেখতে পছন্দ করার পাশাপাশি, পৃথিবীর নানা প্রান্তের মানুষদের তাঁরা এই কাজে উৎসাহিত করেন। 

ইফতেকার রেল-বিশারদ ও মানচিত্রবিদ সম্বিত রায়চৌধুরীর সাথেও একটি প্রজেক্ট করেছেন। পুরোনো কলকাতাকে বোঝার জন্য 'ক্যালকাটা ট্যুরিস্ট ম্যাপ'-এর মত কাজ আগে কখনও হয়নি। 'ক্যালকাটা বাংলো' তাঁর আরেকটি উল্লেখযোগ্য কাজ। উত্তর কলকাতার একটি শতাব্দীপ্রাচীন বাড়িকে এভাবে সাজিয়ে তোলা, সেখানে বেড অ্যান্ড ব্রেকফাস্ট সার্ভিস প্রদান করা - এসব তাঁরই মস্তিষ্কপ্রসূত। এককথায় ইফতেকার সাসটেনেবল ট্যুরিজমের পুরোধাব্যক্তি।

http://calcuttawalks.com/
https://calcuttabungalow.com/

Maya Krishna Rao
Performance maker | Theatre artist | Teacher

is a theatre artist and teacher. Her shows range from dance theatre to cross-media collaborations to comedy. She is her own performer, writer and director. Some of her celebrated performances include, ‘Khol Do’, ‘The Job’, ‘A Deeper Fried Jam’ and ‘Heads Are Meant For Walking Into’, ‘Ravanama’. ‘Walk’ was created in response to the tragic incident of gang rape and death of Jyoti Singh in 2012.  Her latest piece, ‘Loose Woman’, explores the extent to which a woman can stretch and redefine herself. Her shows have travelled all over the world and in India and have been received with critical acclaim.

Maya has taught acting for many years at the National School of Drama, Delhi. Till recently, she was a professor at Shiv Nadar University where she designed the post-graduate diploma programme – TEST – Theatre for Education and Social Transformation – the first of its kind in any institute of higher education in India.

During the lockdown, Maya changed track and made a series of podcasts and short video pieces which have been warmly received by online audiences. She has also been invited to take online teaching sessions in universities, drama schools and arts organisations  in India, USA and UK. 

To know more about her work, click here 

মায়া কৃষ্ণা  রাও
নাট্য অভিনেত্রী
| শিক্ষিকা

মায়া কৃষ্ণ রাও প্রথিতযশা নাট্য অভিনেত্রী ও শিক্ষিকা। নৃত্যশালা থেকে মিশ্র-মাধ্যমের কমেডি- সবেতেই তাঁর দক্ষতা সুবিদিত। তিনি নিজেই তাঁর নাট্যের রচয়িত্রী, অভিনেত্রী ও নির্দেশিকা। তাঁর প্রখ্যাত পারফরমেন্সের কয়েকটি হল, 'খোল দো', 'দ্য জব', 'এ ডিপার ফ্রায়েড জ্যাম', 'হেডস আর মেন্ট ফর ওয়াকিং ইনটু' ও 'রাবণামা'। ২০১২ সালে জ্যোতি সিং-এর নৃশংস গণধর্ষণের প্রতিক্রিয়া হিসেবে তিনি করেছিলেন 'ওয়াক'। তাঁর শেষ কাজ 'ল্যুজ ওম্যান'-এ উঠে এসেছে এক নারীর নিজেকে গড়ে তোলা আর পুনর্সংজ্ঞায়নের কাহিনি। ভারত ও পৃথিবীর নানা প্রান্তে তাঁর শো অভিনীত হয়েছে ও সমালোচকদের প্রশংসা অর্জন করেছে। 

মায়া বহু বছর ধরে দিল্লির জাতীয় নাট্য বিদ্যালয়ে পড়িয়েছেন। সাম্প্রতিক সময়ে তিনি শিব নাদার বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপিকার দায়িত্ব পালন করেছেন। সেখানকার স্নাতকোত্তর ডিপ্লোমা প্রোগ্রামটি, যার নাম TEST - থিয়েটার ফর এডুকেশন অ্যান্ড সোশ্যাল ট্রান্সফরমেশন - ভারতের প্রাতিষ্ঠানিক উচ্চশিক্ষায় প্রথম এই গোত্রের কাজ। মায়া স্বয়ং এর রূপকার। 

লকডাউন পর্বে তিনি গতিপথ বদল করেছেন। বানিয়েছেন একগুচ্ছ পডকাস্ট ও সংক্ষিপ্ত ভিডিও। নেটদুনিয়ায় সাদরে গৃহীত হয়েছে সেগুলি। ভারত, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও গ্রেট ব্রিটেনের নানা শিল্প প্রতিষ্ঠান, নাট্য বিদ্যালয় ও বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইন শিক্ষা প্রদানের জন্য তিনি আমন্ত্রিত হয়েছেন। 

তাঁর কাজ সম্পর্কে বিশদে জানার জন্য এখানে ক্লিক করুন-

http://mayakrishnarao.blogspot.com/